• বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ০৪:৩২ পূর্বাহ্ন

ধর্ষণের ঘটনা ৫১ হাজার রফাদফা !

Reporter Name / ৫১ Time View
Update : শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল, ২০২৪

বালিয়াডাঙ্গী (ঠাকুরগাঁও)প্রতিনিধি:

জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায় ধর্ষণের ঘটনায় ৫১ হাজার টাকায় রফাদফার ঘটনা ঘটেছে। আর ঘটনার মূল নায়ক বলে অভিযোগ উঠেছে বড়বাড়ী ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ইউসুফ আলীর বিরুদ্ধে।

মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) ভোরে এক গোপন শালিসে ভুক্তভোগী নারীকে ডেকে নিয়ে জোর করে স্ট্যাম্পে স্বাক্ষল করিয়ে নেন ইউপি সদস্য ইউসুফ আলী। তবে সেই টাকা ভুক্তভোগী পায়নি বলে জানায় ।

জানা গেছে, ব্লাকমেইল করে দীর্ঘদিন থেকে ওই গৃহবধূকে ধর্ষণ করে আসছিল বালিয়াডাঙ্গী কেবিএম নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অফিস সহকারী লতিফুর ইসলাম(৪০)। একপর্যায়ে সেই ভুক্তভোগী নারী অতিষ্ঠ হয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করলে বিষয়টি জানাজানি হয়।

ভূক্তভোগী ওই নারী জানান, লতিফুর ইসলাম চাকুরীর পাশাপাশি বিকাশের ব্যবসার সাথে জড়িত। বছর খানেক আগে বিকাশে আসা টাকা তুলতে গেলে জোরপূৃর্বক ধর্ষণ করে। ধর্ষণের ঘটনা মোবাইলে ধারণ করে তার স্বামীকে দেখানোর ভয় দেখিয়ে বার বার ধর্ষণ করে আসছিল । পরে বিষয়টি তার স্বামী জানতে পেরে মেনে নিবেনা বলে জানিয়েছেন। আর লতিফ ও তার লোকজন প্রতিনিয়ত আমাকে হুমকি ধমকি দিয়ে আসছিল। তারা চাপ প্রয়োগ করে আমার কাছে লিখিত নিয়েছে। তখন আমাকে ৫১ হাজার টাকা দেয়ার কথা থাকলেও সেই টাকা আমি পাইনি।

ইউপি সদস্য ইউসুফ আলী বলেন, দুপক্ষের কথা শুনে আমি বুঝতে পেরেছি ছেলে মেয়ে দুজনেই দোষী। তাই ৫১ হাজার টাকায় বিষয়টি মিমাংসা করে দিয়েছি। সেই সাথে উভয় পক্ষের কাছে লিখিত নিয়েছি।

অভিযুক্ত লতিফুর ইসলামের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, বিষয়টি মিমাংসা করে ফেলেছি। এটা নিয়ে আর কিছু বলার নাই।

বালীয়াডাঙ্গী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) ফিরোজ বলেন, বিষয়টি শুনেছি, তবে এখনও কোনো অভিযোগ পাইনি। মহিলা যদি আইনের আশ্রয় নেয় সর্বাত্মক সহযোগিতা করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
https://slotbet.online/