• মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ০১:৫৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
অপসারণ হয়নি ঝড়ে পড়া বটগাছ, খোলা আকাশের নীচে দুই পরিবার বিষাক্ত প্রাণী থেকে বাঁচতে যে দোয়া পড়বেন আওয়ামী লীগ দেশের মানুষের কল্যাণের জন্য রাজনীতি করে— আ.লীগের প্লাটিনাম জুবিলিতে এলজিআরডি প্রতিমন্ত্রী বিএনপি স্বাধীনতাবিরোধী সাম্প্রদায়িক অপশক্তির তোষণ না করলে দেশ আরও এগিয়ে যেতো : পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কার প্রাপ্ত হলেন ঠাকুরগাঁও জেলা কমান্ড্যান্ট মিনহাজ আরেফিন ঠাকুরগাঁওয়ে জনপ্রতিনিধি ও নাগরিকদের মধ্যে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত মদিনায় কমিউনিটি সভা: সৌদি প্রবাসীদেরকে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর অভিনন্দন, দিকনির্দেশনা ঠাকুরগাঁওয়ে দণ্ডপ্রাপ্ত আসামী জাহাঙ্গীর আলম হাজতে কেন শহিদুলের বিরুদ্ধে দুদকে মামলা ? ঠাকুরগাঁওয়ে পাটচাষি সমাবেশ অনুষ্ঠিত

স্মার্ট ঠাকুরগাঁও গড়তে প্রধান অন্তরায় যোগাযোগ ব্যবস্থা !

Reporter Name / ৮৬ Time View
Update : রবিবার, ৯ জুন, ২০২৪

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ দেশের উত্তরের জেলা ঠাকুরগাঁও। এ জেলা অন্যান্য জেলার তুলনায় অনেক পিছিয়ে। কৃষি নির্ভর অর্থনীতি জেলা হলেও কৃষি পণ্য সরবরাহে প্রধান অন্তরায় যোগাযোগ ব্যবস্থা। জেলায় ১ হাজার ৫৯৫ কি: মি: রাস্তাঘাট পাঁকা হলেও এখনো ৩ হাজার ৪১৭ কি:মি রাস্তা কাঁচা রয়ে গেছে। স্মার্ট ঠাকুরগাঁও গড়তে রাস্তা পাঁকাকরণ ও ব্রীজ কালভার্ট নির্মাণের বিকল্প নেই। এ দাবী যেন এক গণদাবীতে পরিনত হয়েছে।

কৃষি বিভাগের তথ্য মতে, দেশের খাদ্য উৎপাদনে ঠাকুরগাঁও জেলা গুরুত্বপূর্ণ ভ‚মিকা পালন করে আসছে। এ জেলায় ধান, চাল, গম, ভূট্টা, নানা বিধ সবজি চাষসহ আম, লিচু উৎপাদনেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে।

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার মাতৃগাঁও গ্রামের বাসিন্দা আব্দুল আলিম বলেন, প্রায় ৫০ বছর ধরে নারগুন ইউনিয়নের ১০টি গ্রাম ও মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের ১০টি গ্রামের শিক্ষার্থীসহ সাধারণ মানুষ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে। রমজান আলী বলেন ধান, গম, ভ‚ট্টা এবং বিভিন্ন ধরনের সবজি উৎপাদন করি কিন্তু যোগাযোগ ব্যবস্থা ভালো না থাকায় সময় মতো উৎপাদিত ফসল বাজারে নিতে পারি না। এতে করে পচনজাতীয় ফসল নষ্ট হয়ে যায়। ফলে কৃষক ক্ষতিগ্রস্থ হয়।

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার সালন্দর শাহপাড়া গ্রামের মনসুর আলী বলেন মাদ্রাসাপাড়া হয়ে বাহাদুরপাড়া পর্যন্ত রাস্তাটা চলাচলে অনুপযোগি হয়ে পড়েছে। শহর ঘেষা রাস্তাটি হওয়ায় প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ চলাচল করে। রাস্তাঘাটের উন্নয়ন ছাড়া কি ভাবে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়া সম্ভব ? তিনি রাস্তাটি পাকাকরণের জন্য কর্তৃপক্ষের প্রতি জোর দৃষ্টি জানান। এমন চিত্র শুধু সদর উপজেলায় নয়, অন্য উপজেলা গুলোতেও একই চিত্র।

রাণীশংকৈল, বালিয়াডাঙ্গী, হরিপুর এবং পীরগঞ্জ উপজেলার একাধিক ব্যক্তির সাথে কথা বলে জানা যায়, কিছু রাস্তা রয়েছে, যে গুলোতে বর্ষা মৌসুমে চলাচল করা যায় না। মনের ক্ষোভে গ্রামবাসি অনেক সময় রোপা (ধানের চারা) লাগিয়েছেন। কৃষি পণ্য সরবরাহের জন্য রাস্তা গুলো পাঁকা করা প্রয়োজন। এখনো হাজার হাজার মানুষ পড়ালেখা থেকে শুরু করে সরকারের সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি)’র সূত্রে জানা যায়, ঠাকুরগাঁও জেলায় মোট ৫ হাজার ১২ কি: মি: রাস্তা। পাঁকা হয়েছে ১ হাজার ৫৯৫ কিলোমিটার। কাঁচা ৩ হাজার ৪১৭ কি: মিটার। ব্রীজ/কালভার্টের সংখ্যা ৭ হাজার ৫৪১টি। যার দৈর্ঘ্য ২৬ হাজার ২২৩ মিটার। চলমান ২৩-২৪ অর্থবছরে ৭৫ কি:মি: কাঁচা রাস্তা পাঁকা করা হবে এবং প্রায় ১৫টি ব্রিজের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প (প্রস্তাবিত প্রকল্প) হতে আরো প্রায় ২শ কিলোমিটার সড়ক ও প্রায় ৮৫টি ব্রিজের মোট ২ হাজার ৮০৫ মিটার দৈর্ঘ্য ব্রীজের প্রস্তাব উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তাব (ভিপিপি) প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানানো হয়।

ঠাকুরগাঁওয়ের স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ (এলজিইডি)’র নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ মামুন বিশ্বাস বলেন ঠাকুরগাঁওয়ে এখনো ৩ হাজার ৪১৭ কি:মি রাস্তা কাঁচা রয়েছে। সড়ক সংযোগের জন্য ২ হাজার ৫’শ মিটার বীজ/কালভাট নির্মাণ করা প্রয়োজন। আমরা ইতিমধ্যে কিছু প্রস্তাবনা পাঠিয়েছি।

এ ইসলাম/টাঙ্গন টাইমস


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
https://slotbet.online/