• শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ০৭:৫৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
সংকোচ না করে আমাকে ডাকবেন, পরামর্শ দিবেন-এমপি সুজন ঠাকুরগাঁওয়ে ৪৫ লাখ টাকার হিরোইন উদ্ধার চুরির অপবাদে দায়ন ঋষির মৃত্যুর ঘটনায়, গ্রেফতার-১ চুরির অভিযোগে নৃ-গোষ্ঠীর দুই শিশুকে পাশবিক নির্যাতন, মায়ের মৃত্যু আগামী ৩ জুন ঠাকুরগাঁওয়ে দূর্নীতি রোধে গণশুনানি এমপি আজিমের হত্যাকান্ড মর্মান্তিক, দু:খজনক ও অনভিপ্রেত:পররাষ্ট্রমন্ত্রী চুরির অপবাদে মা ও ছেলেকে নির্যাতন, ৭ ঘন্টা পর মায়ের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার পার্বতীপুর উপজেলা নির্বাচনের হালচাল জনতা ইমেজহীন ;একমুখী নির্বাচনের সম্ভাবনা রূপান্তরের আয়োজনে ঠাকুরগাঁওয়ে পরামর্শ সভা অনুষ্ঠিত ঠাকুরগাঁওয়ে দুই উপজেলায় বিজয়ী হলেন যারা

উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আগ্রহী প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম

Reporter Name / ৮৯ Time View
Update : শনিবার, ৬ এপ্রিল, ২০২৪

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি : আসন্ন ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী  হওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন রুহিয়া ডিগ্রী কলেজের সহকারী অধ্যাপক জাহাঙ্গীর আলম। ইতিমধ্যে তিনি জনসংযোগসহ বিভিন্ন কার্যক্রমের অংশগ্রহণ করছেন।

“কথা নয় কাজে হবে পরিচয়, জনগণ থাকলে পাশে নিশ্চিত হবে জয়” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে নির্বাচনে প্রার্থী হতে সদর উপজেলার সর্ব-স্তরের জনগণের ব্যানারে ইতিমধ্যে প্রচার প্রচারনা করতে দেখা গেছে এই প্রার্থীকে।

উল্লেখ করা হয়েছে, রুহিয়া ডিগ্রী কলেজের সহকারী অধ্যাপক ও কলেজের পরিচালনা পর্ষদের সদস্য এবং রুহিয়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মো: জাহাঙ্গীর আলম সকলের দোয়া ও সমর্থন কামনা করছেন। ইতিমধ্যে রুহিয়াসহ বেশ কিছু এলাকায় তার সমর্থনে ব্যানার, ফেসটুন ও পোষ্টার ঝুলিয়েছেন সমর্থক ও ভক্তরা।

জানা যায়, মো: জাহাঙ্গীর হোসেন রুহিয়া ডিগ্রী কলেজের পরিচালনা পর্ষদের সদস্য ও ওই কলেকের সহকারী অধ্যাপক। এছাড়াও তিনি রুহিয়া থানা শিক্ষক কল্যাণ পরিষদের সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক, ইউনিয়ন আ’লীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক, রুহিয়া থানা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও রুহিয়া ডিগ্রী কলেজের সাবেক ছাত্র সংসদ সদস্য ছিলেন।

মো: জাহাঙ্গীর আলম ১৯৯২ সালে এসএসসি, ১৯৯৪ সালে এইচএসসি, ১৯৯৭ সালে বিএ, অনার্স ও ১৯৯৮ সালে এম, এ পাশ করেন। পরে ২০১০ সালে এল,এল,বি পাশ করেন। ১৯৯২-৯৩ সালে রুহিয়া ডিগ্রি কলেজে ছাত্রলীগ থেকে নির্বাচিত ছাত্র সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ২০১৬ সালে ঠাকুরগাঁও জেলা পরিষদ নির্বাচনে ১০নং আসনে সদস্য পদে ৫২ টির মধ্যে ২১ টি ভোট পেয়ে পরাজিত হন। তিনি ১৯৯২ সাল থেকে আওয়ামী রাজনীতির সাথে জড়িত বলে জানা যায়।

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
https://slotbet.online/