• মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১১:০১ অপরাহ্ন

ভারতের লোকসভা নির্বাচন: দ্বিতীয় পর্বে ভোট পড়ল ৬১ শতাংশ

টাঙ্গন টাইমস ডেস্ক / ১০৬ Time View
Update : শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল, ২০২৪

ভারতের লোকসভা নির্বাচনে গতকাল শুক্রবার দ্বিতীয় পর্বের ভোট অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ পর্বে ১৩টি রাজ্যে ৮৮ আসনে গড়ে প্রায় ৬১ শতাংশ ভোট পড়েছে। পশ্চিমবঙ্গে তিনটি আসনে ভোট পড়েছে প্রায় ৭১ দশমিক ৮৪ শতাংশ। দু-একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া গতকাল শান্তিপূর্ণভাবে ভোট সম্পন্ন হয়েছে। খবর এনডিটিভি ও আনন্দবাজার অনলাইন।

এই পর্বের মধ্য দিয়ে কেরালা, রাজস্থান এবং ত্রিপুরায় ভোটগ্রহণ শেষ হলো। প্রাথমিকভাবে গতকাল ৮৯ আসনে ভোট হওয়ার কথা থাকলেও মধ্যপ্রদেশের বেতুল আসনে মায়াবতীর বিএসপি দলের একজন প্রার্থী মারা যাওয়ায় ওই আসনে নির্বাচনের তারিখ পুনরায় নির্ধারণ করা হয়েছে।

দ্বিতীয় পর্বে কেরালায় ২০, কর্ণাটকে ১৪, রাজস্থানে ১৩, উত্তর প্রদেশে ৮, মহারাষ্ট্রে ৮, মধ্যপ্রদেশে ৭. আসামে ৫, বিহারে ৫, পশ্চিমবঙ্গে ৩, ছত্তিশগড়ে ৩ এবং জম্মু-কাশ্মীরে ১, মণিপুর ও ত্রিপুরায় ১ আসনে ভোট গ্রহণ হয়েছে। বিকাল ৫টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ শেষে দেখা গেছে, গড়ে ৬০ দশমিক ৭ শতাংশ ভোটার তাদের নাগরিক অধিকার প্রয়োগ করেছেন। এ পর্বে গুরুত্বপূর্ণ প্রার্থী হিসেবে লড়াই করেছেন- কংগ্রেসের শীর্ষ নেতা রাহুল গান্ধী, শশী থারুর, কেজি ভেনুগোপাল, অশোক গেহলটের ছেলে বৈভব গেহলট। বিজেপির টিকিট নিয়ে এ পর্বে লড়েছেন অভিনেত্রী হেমা মালিনী, রামায়ন সিরিয়ালখ্যাত অভিনেতা অরুণ গোভিল, তেজস্বী সূর্য এবং লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লা।

আসামের মুসলমানরা ভোট দিতে পারল না :

আসামের মুসলমান অধ্যুষিত বরাক উপত্যকার তিন জেলা করিমগঞ্জ, হাইলাকান্দি এবং কাছাড়ে একাধিক ট্রেন বাতিল করায় সেখানকার ভোটাররা ভোট দিতে পারেননি। অভিযোগ উঠেছে, মুসলমানরা যেহেতু বিজেপিকে ভোট দেবে না এ কারণে কারসাজি করে ট্রেন বাতিল করা হয়েছে। আসামের নাগরিক সমাজের একাংশ এবং অন্যতম বিরোধী দল মুসলমান প্রধান অল ইন্ডিয়া ইউনাইটেড ডেমোক্র্যাটিক ফ্রন্টের (এআইইউডিএফ) অভিযোগ- দ্বিতীয় দফা নির্বাচনে ভোট দিতে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে প্রধানত মুসলমান পরিযায়ী শ্রমিকরা নিজেদের বাড়ি ফেরার চেষ্টা করছেন। কিন্তু ভারতীয় রেল কর্তৃপক্ষ একাধিক ট্রেন বাতিল করে তাদের ঠেকানোর চেষ্টা করেছে- যেন তারা ভোট দিতে না পারেন।

অন্যদিকে বিবিসি জানিয়েছে, কর্ণাটকের রাজধানী বেঙ্গালুরুতে স্থানীয়দের ভোটদানে অনীহা সব সময় লক্ষণীয়। এবার ভোট দিতে উদ্বুদ্ধ করতে নানা উদ্যোগ নিয়েছে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান। জনগণকে ভোট দিতে হোটেল, ট্যাক্সি পরিসেবা সংস্থা, বিভিন্ন কোম্পানি প্রণোদনা ঘোষণা করেছে। এর মধ্যে রয়েছে বিনামূল্যে বিয়ার, মূল্য ছাড়ে ক্যাবেল চলার সুবিধা, স্বাস্থ্য পরীক্ষায় বিশেষ সুযোগ ইত্যাদি।

প্রসঙ্গত, ভারতের লোকসভা নির্বাচনের প্রথম পর্ব অনুষ্ঠিত হয় ১৯ এপ্রিল। সাত পর্বে এ নির্বাচন শেষ হবে ১ জুন আর ফলাফল প্রকাশ করা হবে ৪ জুন।

আরএম/ টাঙ্গন টাইমস


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
https://slotbet.online/